ঘরে বসেই যেভাবে রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করবেন।

চিন্তা বা ভয়ের কিছু নেই, আপনার জন্য সহজ সমাধান। নিন্মোক্ত পথ অনুকরণে আপনি খুব সহজেই ঘরে বসে রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে পারবেন। কিভাবে সংগ্রহ করবেন আসুন গল্পে গল্পে জেনে নেই তার ধাপগুলো:

আমি এখানে আমি ব্যাংক এশিয়াকে উদাহরণ হিসাবে বললাম কারণ আমি গত অর্থবছরেও পেয়নিয়রের মাধ্যমে ব্যাংকে টাকা আনয়ন করি।

১। আপনি যেই মার্কেটপ্লেসেই কাজ করুন না কেন যদি আপনার আয়কৃত ডলার রেমিট্যান্স হিসাবে বাংলাদেশের যেকোনো ব্যাংকে নিয়ে আসেন তাহলে আপনি খুব সহজেই রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে পারবেন। মনে রাখবেন অবশ্যই আপনাকে রেমিট্যান্স হিসাবে টাকা আনতে হবে।

২। আপনি যদি এই অর্থ বছরের জন্য ট্যাক্স প্রদান করতে ইচ্ছুক তাহলে আপনার জমাকৃত অর্থের একটি ব্যাংক স্টেটমেন্ট নিবেন (উক্ত অর্থবছরের পহেলা জুলাই থেকে পরবর্তী ৩১শে জুন পর্যন্ত )। ব্যাংক স্টেটমেন্ট আপনার অনলাইন ব্যাংকিং সেবা থেকেই পাবেন, এবার স্টেটমেন্ট এর মধ্যে কলম দিয়ে চিহ্নিত করুন রেমিট্যান্স হিসাবে ক্রেডিট হওয়া ট্রানসাকশান গুলো। নিচের চিত্রটি দেখুন:

৩। এখন উক্ত ব্যাংক বরাবর একটি দরখাস্ত (ম‍্যানেজার, ব্যাংক এশিয়া, পল্টন ব্রাঞ্চ, বিষয়: রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট উত্তোলন প্রসঙ্গে) লিখতে হবে।

৪। এইবার স্টেটমেন্ট এবং দরখাস্তটি স্ক্যান করে ফেলুন, যদি আপনার স্ক্যানার না থাকে তাহলে আপনার স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে তা স্ক্যান করে নিন (স্টোরে অনেক স্ক্যানার এপ্লিকেশন পাবেন বা আপনি চাইলে ড্রপবক্স এপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতে পারেন)।

৫। এইবার আপনাকে উক্ত ডকুমেন্টস ব্যাংকে পাঠাতে হবে, আপনি যদি ব্যাংক এশিয়া বা পেয়নিয়রের মাধ্যমে ব্যাংকে টাকা আনয়ন করেন তাহলে আপনার নিকটস্থ ব্যাংক এশিয়ার যেকোনো ব্রাঞ্চে ফোন করুন এবং রেমিট্যান্স সেকশন এ কলটি ফরওয়ার্ড করতে বলুন। রেমিট্যান্স সেকশন এ কথা বলে তাদের ইমেইলটি চেয়ে নিন এবং উক্ত ইমেইলে ডকুমেন্টস পাঠিয়ে দিন। আপনি ৩ কর্মদিবসে রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট ফিরতি ইমেইলে পেয়ে যাবেন। ব্যাংক এশিয়ার সকল ব্রাঞ্চ এখানে পাবেন।

৬। আপনার বয়স যদি ১৮ বছরের নিচে হয়ে থাকে তাহলে আপনি চাইলে শুধুমাত্র ভবিষৎ উপকারের জন্য রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করে রাখতে পারেন।

৭। কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই এই বছর ঘরে বসেই আমি রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করেছি। আশা করি আপনিও পেয়ে যাবেন।


বিঃ দ্রঃ
*আপনি অন্যভাবে আনলে বা সরাসরি ক্লায়েন্ট থেকে বা মার্কেটপ্লেস থেকে ওয়্যার ট্রান্সফার, উইথড্র টু লোকাল ব্যাংক দিলে সেক্ষেত্রে আপনার রিলেটেড ব্যাংকে ফোন করবেন।
*ফোনে কথা বলার সময় রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট বিষয়ে ভালো করে বুঝিয়ে কথা বলুন।
* ইমেইল এডড্রেসটি ভালো করে মিলিয়ে নিন।
* কিছু ব্রাঞ্চের হয়তো সীমাবদ্ধতা রয়েছে বা থাকে, সেক্ষেত্রে প্রধান ব্রাঞ্চে ফোন করুন। আর ব্যাংক এশিয়ার ক্ষেত্রে পল্টন ব্রাঞ্চ, ব্রাঞ্চ কোড : 049
*ট্যাক্স প্রদান নিয়ে আরো বিস্তারিত জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন। 

পরিশেষে, যদি লেখাটি আপনার কোনো প্রকার উপকারে আসে তাহলে দয়াকরে সকল ফ্রীলান্সার ভাইদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না। দেশের জন্য এবং দেশকে ভালোবেসে কাজ করুন। মার্কেটপ্লেসে আমাদের কাজের গুণমান ঠিক রাখতে সহযোগিতা করুন। কোনো প্রকার প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট করুন, আমি যথাসাথ্য চেষ্টা করবো আপনার প্রশ্নের উত্তর বা আপনাকে সহযোগিতা করার জন্য।

ঘরে বসেই যেভাবে রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করবেন।

One thought on “ঘরে বসেই যেভাবে রেমিট্যান্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করবেন।

Write a comment....

Scroll to top
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: